১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম :
রাজাকার শ্লোগানধারীদের ছাত্রত্ব বাতিলসহ গ্রেফতারের দাবিতে মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল: মুক্তিযোদ্ধা কোটা পুনর্বহালের রায় কার্যকর করার দাবিতে শাহবাগে সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল উন্মুক্ত হলো ঢাকা-সুইজারল্যান্ড সরাসরি ফ্লাইটের দ্বার ৫ কারণে কোপা যাবে আর্জেন্টিনায় দেশে ফিরলেন ওবায়দুল কাদের দেশের অর্থনৈতিক অঞ্চলে আরব আমিরাতের বিনিয়োগ চান প্রধানমন্ত্রী ড. ইউনূস আসামি, উনি এভাবে কথা বলতে পারেন না’ গাজায় মার্কিন যুদ্ধবিরতি প্রস্তাবনার জবাবে যা জানাল ফিলিস্তিনিরা দিল্লি পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধা কোটা পুনর্বহালের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে ঢাবিতে আনন্দ মিছিল
  • প্রচ্ছদ
  • খেলা
  • ৫ কারণে কোপা যাবে আর্জেন্টিনায়
  • ৫ কারণে কোপা যাবে আর্জেন্টিনায়

    মুক্তি কন্ঠ

    মুক্তিকন্ঠ ডেস্ক :

    আগামী সপ্তাহে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে শুরু হতে যাচ্ছে কোপা আমেরিকা কাপ। টানা তৃতীয় আন্তর্জাতিক শিরোপার খোঁজে আর্জেন্টিনা। ২০ জুন উদ্বোধনী ম্যাচে কানাডার বিপক্ষে লড়বে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

    ঐতিহাসিক মারাকানায় গত আসরের ফাইনালে ব্রাজিলকে হারিয়ে শিরোপা জেতে আর্জেন্টিনা। এটি লিওনেল মেসির প্রথম আন্তর্জাতিক শিরোপা। গত আসরে সর্বমোট ১২টি গোল করেছিল আর্জেন্টিনা। এর মধ্যে ৯টি গোল ছিল বার্সেলোনার সাবেক তারকা।

    এছাড়া সতীর্থদের দিয়েও করিয়ে ছিলেন গোল। হতে পারে এটি তার ক্যারিয়ারের সবশেষ কোপা। আট বারের ব্যালন ডি’অর জয়ী কি পারবেন, তার শেষটা রাঙাতে?

    এবারের কোপায় আর্জেন্টিনাকে টপ ফেবারিট বলা হচ্ছে। এর জন্য পাঁচটি কারণ খুঁজে বের করেছেন ফুটবল বিশ্লেষকরা। সবগুলো সমীরকণ মিলে গেলে আবারও কোপার শিরোপা উৎসবে মাতবে আর্জেন্টাইন সমর্থকরা।

    ব্রাজিলের দুর্বল ফর্ম

    ২০১৯ সালের সর্বশেষ কোপার ট্রফি যেতে ব্রাজিল। সেবার গ্যাব্রিয়েল জেসুস এবং রবার্তো ফিরমিনোর গোলে সেমিফাইনালে আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে ছিল সেলেসাওরা। গ্যাব্রিয়েল এবং ফিরমিনোসহ সেই দলের ক্যাসেমিরো, ফিলিপ কুতিনহো এবং থিয়াগো সিলভার মতো ফুটবলাররা নেই বর্তমান স্কোয়াডে।

    জানুয়ারিতে দায়িত্ব গ্রহণ করা ব্রাজিলের নতুন কোচ দরিভাল জুনিয়র বাদ দেন সকলকে। কোপার প্রস্তুতির জন্য চারটি প্রীতি ম্যাচ খেলেছে ব্রাজিল। ইংল্যান্ড, মেক্সিকোর বিপক্ষে জিতলেও স্পেন ও যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ড্র করে তারা।

    নতুন কোচের অধীনে অপরাজিত থাকলেও, কোপার মত বড় শিরোপা জিততে আর্জেন্টিনা, উরুগুয়ে, চিলির মতো শক্তিশালী দলকে হারাতে হবে। যা পুনর্গঠন প্রক্রিয়া থাকা ব্রাজিলের জন্য অনেক চ্যালেঞ্জিং।

    শীর্ষ খেলোয়াড়দের ফর্ম

    আর্জেন্টিনার দলে বেশ কয়েকজন ইন-ফর্ম খেলোয়াড় রয়েছেন। মেসি এই বছর মেজর লিগ সকারে (এমএলএস) দুর্দান্ত খেলছেন। ইনজুরিতে থাকার পরও ১২ গোল করে আছেন গোলদাতার তালিকার শীর্ষে।

    সাম্প্রতিক সময়ে জাতীয় দলের জার্সিতে বেশ উজ্জ্বল অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া। সবশেষ ইকুয়েডরের বিপক্ষে তার গোলে ম্যাচ জেতে আর্জেন্টিনা। অ্যালেক্সিস ম্যাক অ্যালিস্টার গত মৌসুমে লিভারপুল জার্সিতে মুগ্ধ করেছেন। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের আলেজান্দ্রো গার্নাচো, হুলিয়ান আলভারেজ আর লাউতারো মার্তিনেজও আছেন দারুণ ফর্মে।

    এক্স-ফ্যাক্টর মেসি

    মেসি আর্জেন্টিনার গুরুত্বপূর্ণ সম্পদ। কোপা আমেরিকা জয়ে তার পারফরম্যান্স মহাগুরুত্বপূর্ণ। গত আসরে জেতেন সেরা ফুটবলারের পুরস্কার। ৩৬ বছর বয়সী এই মহাতারকা বিশ্বকাপে দুর্দান্ত খেলেছিলেন।

    সর্বোচ্চ গোলদাতার তালিকার দ্বিতীয়তে ছিলেন তিনি। আর অ্যাসিস্টেও ছিলেন শীর্ষে। এই ফর্ম থাকলে তার ক্যারিয়ারে আরও একটি শিরোপা যুক্ত হলে অবাক হওয়ার কিছুই নেই।

    স্কালোনির কৌশলগত দক্ষতা

    দীর্ঘদিন আন্তর্জাতিক ট্রফি জিততে পারছিল না আর্জেন্টিনা। কিন্তু ২০২১ সালে ২৮ বছরের অপেক্ষা ঘুচিয়ে অবশেষে কোপার শিরোপা জেতে আর্জেন্টিনা। আর কাতারে ৩৬ পর জেতে বিশ্বকাপ। আর এর কারিগর শান্ত স্বভাবের লিওনেল স্কালোনি।

    বহুমুখী কৌশলে প্রতিপক্ষের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে পারদর্শী তিনি। মেসিকে কেন্দ্র করে গড়েন আক্রমণ পরিকল্পনা। আর একই সঙ্গে ধরে রাখেন রক্ষণের দৃঢ়তা। তার রণকৌশলে সর্বোচ্চ স্তরে যে কোনও চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করার জন্য সর্বদা প্রস্তুতি থাকেন তার শিষ্যরা।

    এই আর্জেন্টিনাকে হারানো কঠিন

    ২০১৯ সালে স্কালোনি প্রধান কোচের দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে আর্জেন্টিনা শক্তিশালী দলে পরিণত হয়েছে। ২০১৯ সালে কোপা আমেরিকার সেমিফাইনালে ব্রাজিলের কাছে হেরে যাওয়ার পর, টানা ৩৬ ম্যাচে অপরাজিত ছিল লা আলবিসেলেস্তারা।

    কাতার বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে সৌদি আরবের বিপক্ষে থামে তাদের জয়রথ। এরপর ১৮ ম্যাচের মধ্যে মাত্র ১টিতে হেরেছে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে উরুগুয়ের বিপক্ষে।

    গত পাঁচ বছরে মাত্র দুটি ম্যাচে হেরেছে আর্জেন্টিনা। এই পরিসংখ্যান বলছে স্কালোনি আর্জেন্টিনাকে বিশ্ব ফুটবলে কতটা ভয়ঙ্কর প্রতিপক্ষ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন।

    সূত্র : কালবেলা