১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ |
  • প্রচ্ছদ
  • তথ্যপ্রযুক্তি >> সারাদেশ
  • চালু হলো দেশীয় মোবাইল ব্রাউজার ‘তর্জনী’
  • চালু হলো দেশীয় মোবাইল ব্রাউজার ‘তর্জনী’

    মুক্তি কন্ঠ

    দেশের সাধারণ মানুষকে সহজে ইন্টারনেট ব্যবহারে সহায়তা দিতে সম্পূর্ণ বাংলায় চালু হলো জাতীয় মোবাইল ব্রাউজার ‘তর্জনী’। এতে বাংলার পাশাপাশি রয়েছে ইংরেজি ভাষাও। অ্যাপল এবং গুগল প্লে স্টোরে মিলবে নিরাপদ ও দ্রুতগতির এ বাংলাদেশি ব্রাউজার।

     

    গত মঙ্গলবার রাজধানীর শের-ই-বাংলানগরে আইসিটি মিলনায়তনে প্রধান অতিথি হিসেবে মোবাইল ব্রাউজারটি উদ্বোধন করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

    গুগল ক্রোম এবং অন্য ব্রাউজারের মতো তর্জনী ব্রাউজারেও সব ধরনের আধুনিক ফিচার ব্যবহার করা হয়েছে। এতে আছে তর্জনী সার্চ বার, ডার্ক মোড, ট্যাব, বিজ্ঞাপন বন্ধ, বুকমার্ক, ব্যক্তিগত তথ্যের গোপনীয়তাসহ নানা ফিচার। এ ব্রাউজারটি দেশের ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের ভাষাগত জটিলতা নিরসন ও নিরাপদ সাইবার স্পেস তৈরি করবে বলে জানিয়েছেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী।

     

    প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন ‘ঐতিহাসিক ৭ই মার্চে সাড়ে সাত কোটি মানুষকে বঙ্গবন্ধু যে তর্জনীর ইশারা দিয়েছিলেন, সেই তর্জনীর ইশারায় দেশের ব্যাংক, বীমা, অফিস আদালতসত সবকিছুই পরিচালিত হয়েছিল। তর্জনী উঁচিয়ে জাতিকে স্বাধীনতা সংগ্রামের জন্য ঐক্যবদ্ধ করেছিলেন এবং মুক্তিযুদ্ধের দিকনির্দেশনা দিয়েছিলেন। কিভাবে একটি সামরিক শক্তির বিরুদ্ধে যুদ্ধ পরিচালনা ও ঝাপিয়ে পড়তে হবে। সেই তর্জনীর নামেই আইসিটি বিভাগের উদ্যোগে আমরা উন্মোচন করছি ‘জাতীয় মোবাইল ব্রাউজার তর্জনী’।

     

    অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক রনজিত্ কুমারের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন আইসিটি বিভাগের সচিব মো. সামসুল আরেফিন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্যপ্রযুক্তি ইন্সটিটিউটের অধ্যাপক ড. বি এম মইনুল হোসেন এবং ডিজিটাল লিটারেসি সেন্টারের প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক সাইফুল আলম খান।

     

    প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা এখন ডিজিটাল বাংলাদেশ থেকে স্মার্ট বাংলাদেশে প্রবেশ করছি। এই স্মার্ট বাংলাদেশের সুফল পেতে হলে আমাদের শুধু বিদেশ নির্ভর সেবার ওপর নির্ভর করে থাকলে চলবে না। আমাদের স্বাবলম্বী হতে হবে। আমরা এমন একটি স্মার্ট বাংলাদেশ ইকোসিস্টেম তৈরি করতে চাই, যেটি হবে স্বাবলম্বী। সেই স্বাবলম্বী স্মার্ট বাংলাদেশের জন্য আমরা এনেছি তর্জনী।

     

    পলক বলেন, আমরা আত্মনির্ভরশীল স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে চাই যেখানে আমাদের নিজস্ব অপারেটিং সিস্টেম থাকবে, নিজস্ব ব্রাউজারে ব্যবহারকারীরা ইন্টারনেট ব্যবহার করবে। আমরা শুধু ফ্রিল্যান্সিং ও আউটসোর্সিং করবো না, আমাদের দেশ থেকেও গুগল, অ্যামাজন, ফেসবুক ও আলীবাবার মতো বিলিয়ন-ট্রিলিয়ন ডলারের কম্পানি তৈরি ও উদ্ভাবনে তরুণদের সহযোগিতা করাই আমাদের আইসিটি বিভাগের মূল উদ্দেশ্য। সেই ক্ষেত্রে তর্জনী প্রকাশের মাধ্যমে একটা বিশাল অগ্রগতি হলো।

     

    এখানে সরকারের বিভিন্ন সেবা, নিউজপোর্টাল ও বিনোদনের ব্যবস্থা রয়েছে। বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের (বিসিসি) এস্টাবলিসমেন্ট অব সিকিউরড ই-মেইল ফর গভর্নমেন্ট অ্যান্ড ডিজিটাল লিটারেসি সেন্টারের উদ্যোগে চালু করা হয়েছে ‘তর্জনী’ ব্রাউজার। গুগল ক্রোম একটি দ্রুত এবং নিরাপদ ব্রাউজার, যা সারা বিশ্বে ব্যাপকভাবে ব্যবহূত হয়। অন্যদিকে তর্জনী ব্রাউজারটি তৈরি করা হয়েছে বাংলা ভাষা ব্যবহারকারীদের ভাষাগত জটিলতা দূরীকরণের জন্য। ব্রাউজারটিতে শুধু বাংলা নয়; ব্যবহারকারীদের জন্য রয়েছে ইংরেজি ভাষাও। অ্যাপল এবং গুগল প্লে স্টোরে মিলবে নিরাপদ ও দ্রুতগতির এই বাংলাদেশি ব্রাউজার।

     

    এর আগে সকালে প্রতিমন্ত্রী আইসিটি টাওয়ার চত্বরে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এসময় আইসিটি বিভাগের সচিব মো. সামসুল আরেফিনসহ বিভাগ ও সংস্থা সমূহের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

     

    প্রসঙ্গত: বিশ্বে জানুয়ারি পর্যন্ত ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ছিল ৫.১৬ বিলিয়ন, যা বিশ্বের মোট জনসংখ্যার প্রায় ৬৫ শতাংশ। স্ট্যাটকাউন্টারডটকমের তথ্য অনুযায়ি, বিশ্বে ব্রাউজারের মধ্যে শীর্ষস্থান দখল করে আছে গুগলের ক্রোম ব্রাউজার। এই ব্রাউজারটির ব্যবহারকারীর ৬৫.৮৪ শতাংশ। এরপরে আছে অ্যাপলের সাফারি ব্রাউজার, তাদের ব্যবহারকারীর সংখ্যা ১৮.৭ শতাংশ, মাইক্রোসফটের এজ ব্রাউজার ৪.৪৪ শতাংশ, ফায়ারফক্স ৩.০৪ শতাংশ, স্যামসাং ইন্টারনেট ২.৬৮ শতাংশ এবং ওপেরা ব্র্যাউজারের ব্যবহারকারী রয়েছে ২.২৮ শতাংশ।

     

    তথ্য সুত্র: কালের কন্ঠ