১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম :
রাজাকার শ্লোগানধারীদের ছাত্রত্ব বাতিলসহ গ্রেফতারের দাবিতে মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল: মুক্তিযোদ্ধা কোটা পুনর্বহালের রায় কার্যকর করার দাবিতে শাহবাগে সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল উন্মুক্ত হলো ঢাকা-সুইজারল্যান্ড সরাসরি ফ্লাইটের দ্বার ৫ কারণে কোপা যাবে আর্জেন্টিনায় দেশে ফিরলেন ওবায়দুল কাদের দেশের অর্থনৈতিক অঞ্চলে আরব আমিরাতের বিনিয়োগ চান প্রধানমন্ত্রী ড. ইউনূস আসামি, উনি এভাবে কথা বলতে পারেন না’ গাজায় মার্কিন যুদ্ধবিরতি প্রস্তাবনার জবাবে যা জানাল ফিলিস্তিনিরা দিল্লি পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধা কোটা পুনর্বহালের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে ঢাবিতে আনন্দ মিছিল
  • প্রচ্ছদ
  • আর্ন্তজাতিক >> মতামত >> রাজনীতি >> লাইফস্টাইল
  • ক্ষমতাসীন নেতানিয়াহু সরকারের বিরুদ্ধে ইসরায়েলে নজিরবিহীন বিক্ষোভ
  • ক্ষমতাসীন নেতানিয়াহু সরকারের বিরুদ্ধে ইসরায়েলে নজিরবিহীন বিক্ষোভ

    মুক্তি কন্ঠ

     

    টানা পঞ্চম সপ্তাহের মতো নেতানিয়াহু সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে নেমেছে হাজার হাজার ইসরায়েলি। দেশটির বিচার বিভাগ সংক্রান্ত আইনগুলোতে বড় পরিবর্তনের উদ্যোগ নিয়েছে প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর সরকার। তা রুখতেই দেশটিতে চলছে এই নজিরবিহীন বিক্ষোভ। খবর আল-জাজিরার।

    শনিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) তেল আবিব শহরে হাজার হাজার বিক্ষোভকারী দেশটির পতাকা হাতে নিয়ে নেতানিয়াহুর বিচারমন্ত্রীর বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে থাকে।

    দোভ লেভেনগিক নামে ৪৮ বছর বয়সী ইসরায়েলি একজন সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, ‘আমি আজ রাতে এখানে প্রতিবাদ জানাতে এসেছি, ইসরায়েলের গণতন্ত্র থেকে একনায়কতন্ত্র রুখে দিতে।’

    হাদার সেগাল নামে আরেক ইসরায়েলি বলেন, তারা আমাদের বিচারব্যবস্থাকে ছিন্নভিন্ন করতে চায়। তারা ইসরায়েলি গণতন্ত্রকে তছনছ করতে চায়। তাই আমরা প্রতি সপ্তাহে যে কোনো আবহাওয়ায় ইসরায়েলি গণতন্ত্রকে রক্ষা করতে প্রতিবাদ করছি।

    বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, উগ্র ডানপন্থীদের সমর্থন নিয়ে ষষ্ঠবারের মতো ইসরায়েলের নির্বাচনে জিতে প্রধানমন্ত্রী হওয়া নেতানিয়াহু বিচার বিভাগের এমন কিছু সংস্কার করার পরিকল্পনা করেছেন, যার ফলে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট দুর্বল হয়ে পড়বে বলে মন্তব্য বিরোধীদের।

    সমালোচকরা এ পরিবর্তনের উদ্যোগকে ‘অভ্যুত্থান’, ‘ক্ষমতার পটপরিবর্তন’ ইত্যাদি নানা শব্দে আখ্যায়িত করছেন। অনেকে বলছেন নেতানিয়াহু নিজেই ইসরায়েলের ‘গণতন্ত্রের জন্য এক মূর্তিমান বিপদ।’

    সুত্র: ইত্তেফাক