১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম :
রাজাকার শ্লোগানধারীদের ছাত্রত্ব বাতিলসহ গ্রেফতারের দাবিতে মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল: মুক্তিযোদ্ধা কোটা পুনর্বহালের রায় কার্যকর করার দাবিতে শাহবাগে সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল উন্মুক্ত হলো ঢাকা-সুইজারল্যান্ড সরাসরি ফ্লাইটের দ্বার ৫ কারণে কোপা যাবে আর্জেন্টিনায় দেশে ফিরলেন ওবায়দুল কাদের দেশের অর্থনৈতিক অঞ্চলে আরব আমিরাতের বিনিয়োগ চান প্রধানমন্ত্রী ড. ইউনূস আসামি, উনি এভাবে কথা বলতে পারেন না’ গাজায় মার্কিন যুদ্ধবিরতি প্রস্তাবনার জবাবে যা জানাল ফিলিস্তিনিরা দিল্লি পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধা কোটা পুনর্বহালের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে ঢাবিতে আনন্দ মিছিল
  • প্রচ্ছদ
  • আর্ন্তজাতিক >> মতামত >> রাজনীতি
  • আগামীতেও বাংলাদেশের পাশে ভারত বন্ধু হিসেবে থাকবে: ভারতীয় হাই কমিশনার
  • আগামীতেও বাংলাদেশের পাশে ভারত বন্ধু হিসেবে থাকবে: ভারতীয় হাই কমিশনার

    মুক্তি কন্ঠ

    বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনার শ্রী প্রণয় ভার্মা বলেছেন, ‘বাংলাদেশ ভারত বন্ধু প্রতিম দেশ। ভৌগলিকভাবেও বাংলাদেশের সংস্কৃতি, কৃষ্টি কালচার, ইতিহাস ভারতের সংস্কৃতি ও কৃষ্টি কালচারের মতো একই। ১৯৭১ সালে ভারত বাংলাদেশের সঙ্গে বন্ধু হিসেবে ছিল। সেই ধারা আমরা অব্যাহত রেখেছি। আগামীতেও বাংলাদেশের পাশে ভারত বন্ধু হিসেবে থাকবে।’

    আজ বুধবার দুপুরে গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীর শ্রীধাম ওড়াকান্দির ঠাকুর বাড়িতে মতুয়া মহা সংঘের প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

    ভারতীয় হাই কমিশনার আরও বলেন, ‘শ্রীধাম ওড়াকান্দির ঠাকুর বাড়িতে আমাদের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এসেছিলেন। সেই কারণে আমিও এখানে আসলাম। এখানে এসে আমারও খুব ভালো লেগেছে।’

    বাংলাদেশ মতুয়া মহা সংঘের সংঘাধিপতি মতুয়া মাতা শ্রী সীমা দেবী ঠাকুরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় সংগঠনের কার্যকরী সভাপতি ও কাশিয়ানী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শ্রী সুব্রত ঠাকুর, সাধারণ সম্পাদক সাগর সাধু ঠাকুর, মতুয়াচার্য শ্রী অমিতাভ ঠাকুর ও মতুয়া মহাসংঘের সভাপতি দেবব্রত ঠাকুর বক্তব্য রাখেন।

    পরে দুপুর আড়াইটায় টুঙ্গিপাড়ায় পৌঁছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে পুস্পস্তবর্ক অর্পণ করে গভীর শ্রদ্ধা জানান প্রণয় ভার্মা। পরে বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের শহীদ সদস্যদের আত্মার শান্তি কামনা করে প্রার্থনা করেন। পরে বঙ্গবন্ধু ভবনে রক্ষিত মন্তব্য বহিতে মন্তব্য লিখে স্বাক্ষর করেন। এ সময় ভারতীয় হাইকমিশনের ফাস্ট সেক্রেটারি অনিমেষ চৌধুরী, সেকেন্ড সেক্রেটারি ভাইভাভ গান্ধী, প্রটোকল অফিসার গায়েস্বর প্রসাদ মিশরাও উপস্থিত ছিলেন।